৪ ধর্ষকের সঙ্গে নারী আইনজীবীকেও একই জেলে রাখার দাবি!

ভারতের বহুল আলোচিত ধর্ষণ মামলা নির্ভয়ার চার ধর্ষকের ফাঁসি নিয়ে তীব্র সমালোচনা চলছে। তার মধ্যে নির্ভয়ার মা আশাদেবীর কাছে চার ধর্ষককে ক্ষমা করার আর্জি জানিয়ে নতুন করে বিতর্ক বাড়িয়েছেন প্রবীণ আইনজীবী ইন্দিরা জয়সিং। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন মহলে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। বৃহস্পতিবার ইন্দিরা জয়সিংয়ের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রাণাওয়াত। বরাবরই ঠোঁটকাটা কঙ্গনার বক্তব্য, ‘ওই মহিলাকে চার ধর্ষকের সঙ্গে চার দিন একই জেলে রেখে দেয়া উচিত। ওনার জন্য এটাই দরকার। উনি কেমন মহিলা? ধর্ষকদের ক্ষমা করতে বলছেন! ওনার মতো মহিলার গর্ভ থেকেই এই ধরনের রাক্ষস জন্মায়।’

কঙ্গনার বক্তব্য সমর্থন করেছেন নির্ভয়ার মা আশাদেবী। তার মতে, ‘কঙ্গনা ঠিকই বলেছেন। আমি তাকে পূর্ণ সমর্থন করি। কেউ অন্তত ইন্দিরা জয়সিংয়ের বিরুদ্ধে মুখ খুলে আমার পাশে দাঁড়িয়েছেন।’ নির্ভয়া কাণ্ডের চার ধর্ষক এবং খুনিকে প্রকাশ্যে ফাঁসিতে ঝোলানোর পক্ষে কথা বলেছেন কঙ্গনা। অভিনেত্রীর মতে, ‘ওই চারজনকে চুপচাপ মেরে ফেলা ঠিক হবে না। এমনভাবে মারা উচিত, যাতে একটি উদাহরণ তৈরি হয়। প্রকাশ্যে রাস্তায় ঝুলিয়ে মারা উচিত।’ কঙ্গনার এই বক্তব্যকেও সমর্থন করেছেন নির্ভয়ার মা। আশাদেবীর বক্তব্য, ‘প্রকাশ্যে ফাঁসি দেয়া হলে অপরাধ দমনের ক্ষেত্রে উদাহরণ তৈরি হতে পারে। যাঁর মেয়ে এমন ঘৃণ্য অপরাধের শিকার হয়, কেবলমাত্র তিনিই এই যন্ত্রণা বুঝতে পারবেন। যখন ওই ঘটনা ঘটেছিল, তখন মানবাধিকার কর্মীরা কোথায় ছিলেন?’

আশাদেবীর এই বক্তব্যের কারণ গত শুক্রবার ইন্দিরা জয়সিংয়ের একটি ট্যুইট। তিনি নির্ভয়ার মায়ের উদ্দেশে লেখেন, ‘আমরা আপনার কষ্ট বুঝতে পারছি। আপনার সঙ্গে আছি। তবে, সোনিয়া গান্ধী যেভাবে রাজীব গান্ধীর হত্যার ষড়যন্ত্রী নলিনীকে ক্ষমা করেছিলেন, সেই রকম আপনার উচিত ধর্ষকদের ক্ষমা করা।’

এই পরামর্শ শুনে কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন আশাদেবী। তিনি প্রশ্ন তোলেন, ‘কে ইন্দিরা জয়সিং? উনি আমাকে পরামর্শ দেওয়ার কে? পুরো দেশ যখন ধর্ষকদের ফাঁসি চাইছে, তখন ওর মতো কয়েকজনের জন্যই ধর্ষিতারা সঠিক বিচার পান না।’ নির্ভয়ার মা আরও বলেন, সাত বছর ধরে মামলা চলেছে। বহুবার সুপ্রিম কোর্টে ইন্দিরা জয়সিংয়ের সঙ্গে তার দেখা হয়েছে। একবার তিনি কেমন আছেন, জানতে চাননি প্রবীণ আইনজীবী। ধর্ষকদের পক্ষ নিয়ে ইন্দিরা জয়সিংয়ের মতো আইনজীবীর রোজগার হয়। তাই ধর্ষণের ঘটনা দেশে বন্ধ হয় না।
সূত্র : বর্তমান

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *