ব্যর্থ নির্বাচন কমিশনের সরে যাওয়া উচিত

বর্তমান সরকার ও নির্বাচন কমিশন ভোট গ্রহণের সম্পূর্ণ ব্যর্থ এবং কমিশনের সদস্যদের এখনই দায়িত্ব থেকে সরে যাওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব ও সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ।

সংসদে মঙ্গলবার পয়েন্ট অব অর্ডারে ফ্লোর নিয়ে তিনি বলেন, অযোগ্য অপদার্থ ও ব্যর্থ নির্বাচন কমিশনের সদস্যদের এখনই দায়িত্ব থেকে সরে যাওয়া উচিত।

বিকালে স্পিকার ড. শিরীণ শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হলে পয়েন্ট অব অর্ডারে ফ্লোর নিয়ে গত ১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের বৈধতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেন এই সংসদ সদস্য। তিনি নির্বাচনের ভোটার উপস্থিতি কম হওয়ার জন্য নির্বাচন কমিশন ও সরকারকে দায়ি করেন।

হারুনুর রশীদ বলেন, পহেলা ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। সেই নির্বাচনে সর্বোচ্চ ২৭ শতাংশ ভোট কাস্ট হয়েছে। তিনি আরো বলেন, দেশে যত জায়গায় নির্বাচন পরিচালনার বডি রয়েছে তা পরিচালনার ক্ষেত্রে একটা কমিটি কার্যক্রমের ক্ষেত্রেও কমপক্ষে এক তৃতীংশ উপস্থিতি লাগে। যেখানে এক তৃতীংশ ভোটর উপস্থিত হয়নি, সেই নির্বাচনর কি গ্রহণযোগ্য? এই নির্বাচনের কোনো বৈধতা আছে? যেখানে সিংহভাগ মানুষ নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে পারল না, তাদের মতামত ও রায় দিতে পারল না। সেই নির্বাচনের কি গ্রহণযোগ্যতা আছে?

সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবরের উদ্ধৃতি দিয়ে হারুনুর রশীদ বলেন, ইভিএম-এর ফলাফলও পরিবর্তন হয়েছে। সংবিধান যখন প্রণয়ন করা হয়েছিলো, তখন বাংলাদেশের কোথাও নির্বাচনে ৩০ ভাগের কম ভোটার উপস্থিতিতে নির্বাচন গ্রহণযোগ্য ছিল না। তিনি বলেন, বর্তমান সরকোরের আমলে ছাড়া অতীতে কোন সময় স্থানীয় সরকার নির্বাচনে বা জাতীয় নির্বাচনে ৫০ভাগের কম ভোটে রেকর্ডের নজির নাই। তাই বর্তমান সরকার এবং নির্বাচন কমিশন ভোট গ্রহণ করার ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ ব্যর্থ। এই অবস্থা থেকে তারা জনগণকে অবিলম্বে মুক্তি দিবেন বলে আশা প্রকাশ করেন বিএনটির এই সংসদ সদস্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *