ফিঞ্চকে হাসতে দিলো না পাকিস্তান

ভাগ্য সহায় হলো, হারতে হলো না পাকিস্তানকে। বৃষ্টি বাঁচিয়ে দিলো বাবর আজমদের। দুই দফা বৃষ্টি নিশ্চিত হারের ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিলো। ফলে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-২০টি পরিত্যক্ত হলো। এতে সবচেয়ে বেশি হতাশ অস্ট্রেলিয়ার ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চ। শুরু থেকেই দুর্দান্ত ব্যাট করছিলেন তিনি। ব্যাটে চার-ছক্কার ঝড় তুলে ১৬ রানেই তুলে নিয়েছিলেন ৩৯ রান। কিন্তু তাকে হাসতে দিলো না পাকিস্তান। বৃষ্টির তোড়ে ভেসে গেলো ম্যাচ।

সকালে ম্যাচ শুরুর আগে দুই দলেরই জানা ছিল বৃষ্টির কথা। ফলে টস জিতে পাকিস্তানকে ব্যাট করতে পাঠায় অস্ট্রেলিয়া।

ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই মিচেল স্টার্কের বলে সাজঘরে ফিরেন ওপেনার ফখর জামান। পরের ওভারে হারিস সোহেল। এরপর বাবরের সাথে জুটি বাঁধেন রিজওয়ান। কিন্তু ৩১ রানেই সাজঘরে ফিরেন রিজওয়ান। ১২.৪ ওভারে দলের সংগ্রহ যখন ৩ উইকেটে ৮৮ রান, তখন বৃষ্টি শুরু হয়। বাবর তখন ব্যাট করছিলেন ২৯ বলে ৪৩ রান নিয়ে।

বৃষ্টি শেষে আবারো ব্যট করতে নামেন বাবর। কিন্তু ততক্ষণে ৫ ওভার কাটা হয়েছে। হাতে আছে দুই ওভার। হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করে এগিয়ে যান তিনি। এরপর অপরপ্রান্তের আরো দুই ব্যাটসম্যান সাজঘরে ফিরেন। কিন্তু একপ্রান্তে শেষ পর্যন্ত ছিলেন বাবর। ৩৮ বলে ৫ বাউন্ডারি ও দুটি ছক্কা মেরে ৫৯ রানে অপরাজিত ছিলেন।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যারন ফিঞ্চ ৪১ রানের পাটর্নারশিপ গড়েছেন মাত্র তিন ওভারেই। ব্যাটে ঝড় তুলেন অধিনায়ক ফিঞ্চ। ৫ বাউন্ডারি ও দুটি ছক্কা হাকিয়ে ১৬ বলে ৩৭ রান তুলে ফেলেন। কিন্তু এর পরই আবার বৃষ্টির বাগড়া। সহজ জয়টা অধরা হয়ে যায় অস্ট্রেলিয়ার।

তবে এ ঘটনায় সবচেয়ে বেশি হতাশ হয়েছেন ফিঞ্চ। ম্যাচ শেষে সেই আক্ষেপ ঝরে তার কণ্ঠে, ‘আমি খুবই হতাশ। প্রথম দফার বৃষ্টির কারণে ওভার কাটার পর ইনিংস বিরতি হলো ২০ মিনিটের। ব্যাপারটি খুব মজার ছিল। এই বিরতিটা না হলে খেলা তখনই শেষ হয়ে যেত। কিন্তু আবহাওয়ার ওপর তো কারো হাত নেই। যদি কোনো কারণে ম্যাচের ওভার কাটা হয় এবং এরপর আবার ২০ মিনিটের ইনিংস বিরতি নেয়াটা আমার কাছে যুক্তিসঙ্গত মনে হয় না। কিন্তু কী আর করা! এটাই নিয়ম এবং এখানে তোমার কিছু করার নেই। কিন্তু আমরা খুব ভালো খেলেছিলাম।

তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি হবে আগামী ৫ নভেম্বর। আর তৃতীয়টি ৮ নভেম্বর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *